আজ ৭ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ক্যাটাগরি পছন্দ না হওয়ায় পিসিবির চুক্তির প্রস্তাব ফিরিয়ে দিলেন হাফিজ

ক্রিড়া ডেস্কঃ ২০১৯ সাল থেকে কেন্দ্রীয় চুক্তির বাইরে মোহাম্মদ হাফিজ। সম্প্রতি দারুণ পারফরম্যান্স করায় তাকে চুক্তির প্রস্তাব দেয় পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। কিন্তু ক্যাটাগরি পছন্দ না হওয়ায় তা ফিরিয়ে দিয়েছেন পাকিস্তানের শীর্ষ টি-টোয়েন্টি ব্যাটসম্যান।

সর্বনিম্ন ক্যাটাগরি ‘সি’তে চুক্তির প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল হাফিজকে। এ কারণেই অখুশী হয়ে তা বিনয়ের সঙ্গে প্রত্যাখ্যান করেন এই অলরাউন্ডার। ২০২০ সালে তার ম্যাচ ফি ‘এ’ ক্যাটাগরিতে দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিল। তাতে বলা হয়েছিল পাকিস্তানের হয়ে যে কোনও ম্যাচ খেললে অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে তা পাবেন হাফিজ।

এরপর থেকে টি-টোয়েন্টিতে নিজেকে নতুনভাবে আবিষ্কার করেন হাফিজ। শেষ ১২ ম্যাচে এই ফরম্যাটে সর্বাধিক রানের তালিকায় তার উপরে কেবল ডেভিড মালান। ইংলিশ ব্যাটসম্যান যেখানে করেছেন ৩৮৬ রান, সেখানে হাফিজের রান এক ইনিংস কম খেলে ৩৩১। পিসিবির প্রধান নির্বাহী ওয়াসিম খান বলেছেন, ‘মোহাম্মদ হাফিজ পুরস্কার ফিরিয়ে দিয়েছেন এবং আমি যদিও হতাশ, কিন্তু তার সিদ্ধান্তের প্রতি শ্রদ্ধা জানাই। তিনি ২০২১-২২ মৌসুমের চুক্তির জন্য অপেক্ষায় থাকতে চান।’

এক দশক পর টেস্ট দলে ফিরে স্মরণীয় প্রত্যাবর্তনের পুরস্কার পেয়েছেন ফাওয়াদ আলম। ২০২০-২১ মৌসুমের কেন্দ্রীয় চুক্তিতে জায়গা হয়েছে তার, পেয়েছেন ‘সি’ ক্যাটাগরি। ২০২০ সালের আগস্টে ফেরার পর ছয় টেস্টে তার রান ৩২০। নিউ জিল্যান্ডে বক্সিং ডে টেস্টে অনবদ্য সেঞ্চুরিতে তিনি ২০২০ সালের পিসিবি বর্ষসেরা ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সের অ্যাওয়ার্ড জেতেন। এছাড়া ঘরের মাঠে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে হাঁকান সেঞ্চুরি। ঘরোয়া দল সিন্ধের হয়ে ‘এ প্লাস’ ক্যাটাগরিতে চুক্তিবদ্ধ ছিলেন এই ব্যাটসম্যান।

পুনর্মূল্যায়ন শেষে এই কেন্দ্রীয় চুক্তিতে উন্নতি হয়েছে উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ রিজওয়ানের। ‘বি’ ক্যাটাগরি থেকে চতুর্থ ক্রিকেটার হিসেবে ‘এ’তে উঠেছেন তিনি, সেখানে আছেন অধিনায়ক বাবর আজম, আজহার আলী ও শাহীন শাহ আফ্রিদি।

২০২০ সালের মে থেকে সর্বশেষ চুক্তি কার্যকর হওয়ার পর টেস্টে পাকিস্তানের শীর্ষ ব্যাটসম্যান রিজওয়ান। সাত ম্যাচে ৫২.৯০ গড়ে ৫২৯ রান। একই সময়ে টি-টোয়েন্টিতেও দেশের তৃতীয় শীর্ষ ব্যাটসম্যান হয়েছেন ৬৫ গড়ে ৩২৫ রান করে। ২৮ বছর বয়সী এই উইকেটকিপার এর মধ্যে টেস্টে ১৬ ডিসমিসাল করেছেন এবং ওয়ানডেতে তিনটি ও টি-টোয়েন্টিতে আটটি। বাবরের অনুপস্থিতিতে নিউ জিল্যান্ডে টেস্ট দলের নেতৃত্বেও ছিলেন তিনি।

উদীয়মান খেলোয়াড়ের চুক্তিতে জায়ঘা হয়েছে হায়দার আলী, হারিস রউফ ও মোহাম্মদ হাসনাইনের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap