আজ ২রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৬ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সখিপুরে ১০ মাস বয়সি বকনা বাছুর দুধ দিচ্ছে

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ  বাচ্ছা দেয়া গাভি দুধ দেবে এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু ১০ মাস বয়সি বকনা বাছুর দুধ দেয়াটা অস্বাভাবিক। তা আবার  দিনে ৩ লিটার করে দুধ। এমনটা শুনলে যে কারও চোখ কপালে উঠবে। ব্যতিক্রমী এ ঘটনা ঘটেছে টাঙ্গাইলের সখীপুর পৌরসভার গড়গোবিন্দপুর গ্রামে। ওই গ্রামের খোরশেদ আলমের বাড়ির  ১০ মাস বয়সি একটি বকনা বাছুর এখন দিনে তিন লিটার দুধ দিচ্ছে। বাছুরটির মা দুধ দিচ্ছে ছয় লিটার। এ ঘটনা শুনে প্রতিদিন উৎসুক মানুষ দলে দলে ভিড় করছে ওই বাড়িতে।তবে এমন ঘটনায় বিস্মিত বা আশ্চর্য হওয়ার কিছু নেই বলে জানালেন সখীপুর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা.আবদুল জলিল। তিনি বলেন হরমোনের কারণে এমনটা হতে পারে। ঘটনাটি ভিন্ন রকম মনে হলেও ওই বকনার দুধ পুরোপুরি স্বাস্থ্যসম্মত। এ ধরনের ঘটনা দেশে  এর আগেও ঘটেছে।

সরেজমিন খোরশেদ আলমের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায় তার স্ত্রী মর্জিনা খাতুন ১০ মাস বয়সের ওই বকনা গরুর ওলান থেকে দুধ সংগ্রহ করছেন। এমন দৃশ্য দেখতে উৎসুক জনতা ওই বাড়িতে ভিড় করছেন। মর্জিনা খাতুন জানান, ওই বকনার দুধ সংগ্রহ না করলে ওলান থেকে এমনি এমনি দুধ ঝরে পড়ে। তিনি গত ১৫ দিন ধরে এই  বকনা বাছুর  থেকে এভাবে দুধ সংগ্রহ করছেন। এ ব্যাপারে মর্জিনা খাতুন বলেন, দীর্ঘদিন ধরে তিনি পারিবারিক পরিবেশে গাভি পালন করছেন। ১০ মাস আগে তার পালিত বিদেশি জাতের গাভিটির বাছুর হয়। আর সেই বাছুরকে লালন-পালন করে আসছেন তিনি। ১৫ দিন আগে তিনি ১০ মাস বয়সী বাছুরকে গোসল করাতে গেলে গরুটির ওলান ফোলা দেখে ধারণা করেন, এর ওলানে দুধ জমেছে। তিনি তাৎক্ষণিক গরুটির ওলান থেকে দুধ সংগ্রহ করেন। প্রথম কয়েক দিন আধা লিটার দুধ পান তিনি। এখন দুধের পরিমাণ বেড়ে তিন লিটার হয়েছে। পরিবারের সদস্যরা এই দুধ পান করছেন। মাঝেমধ্যে এলাকার লোকজনকেও বিনা মূল্যে দিচ্ছেন তিনি।

ওই এলাকার আবদুল হাই তালুকদার বলেন, সাধারণত যে গাভি বাচ্চা জন্ম দেয় সেই গাভিই দুধ দিয়ে থাকে। ১০ মাস বয়সি বকনা বাছুর দুধ দেয়া  ব্যতিক্রমী ঘটনা।  বিষয়টি শুনে আমরা আশ্চর্য হয়েছি।  যারা বিশ্বাস করতে চায়না তারা  দুধ দোয়ানোর দৃশ্য দেখতে  ভিড় জমাচ্ছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ বিভাগের আরো সংবাদ