আজ ৮ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২২শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

কালিহাতিতে চেতনানাশক মিশিয়ে দুর্ধুষ চুরি

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার ভিয়াইলে চেতনানাশক মিশিয়ে দুর্ধুষ চুরির ঘটনা ঘটেছে। বৃহঃস্পতিবার দিবাগত রাতে ভিয়াইল বাজার সংলগ্ন বেপারী পাড়া রাইজ উদ্দিনের বাড়িতে এ চুরির ঘটনা ঘটে। এসময় ৫-৬ ভরি স্বর্ণ, নগদ প্রায় বিশ হাজার টাকা ও একটি পাসপোর্টও চুরি হয়।

বাড়ির মালিক রাইজ উদ্দিন বলেন প্রতিদিনের মতো এশার নামাজ ও রাতের খাবার শেষে দশটায় শোবার সময়ের আগেই বাড়ির সকলের শরীর দুর্বল ও ঘুম ঘুম লাগলে ঘুমিয়ে পড়ি। ঘুমের কারণে ফজরের নামাজও জামাতে পড়তে পারিনি। সকালে পাশের বাড়ির লোকজন ডেকে তোলে।

আমার ধারণা টিউবওয়েলে অচেতন করার কোনও ঔষধ মিশিয়ে দুইটা দরজার সিটকিনি ও খিল সোজা টিন কেটে ঘরে ঢুকে স্টিলের ড্রয়ার ভেঙ্গে ৫-৬ ভরি স্বর্ণ, নগদ প্রায় বিশ হাজার টাকা ও একটি পাসপোর্ট চুরি যায়।

রাইজ উদ্দিনের ছেলে রৌহা মাদরাসার শিক্ষক হাফেজ আব্দুল হালিম চুরির ঘটনায় জড়িতদের সনাক্ত করে আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তি নিশ্চিতের দাবি জানান।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মুক্তার আলী সরকার ও স্থানীয় প্রশাসেনর নিকট চেতনা নাশক দ্রব্য বা ঔষধ নিষিদ্ধের দাবি জানান।

স্থানীয় ফারুক, বেলায়েত, মকবুল সহ আরো ৪/৫ জন বলেন, এধরণের চেতনা নাশক ব্যবহার করে চুরি পাশাপাশি যে কোনও রকম বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটে আইন শৃংখলার ব্যাপক অবনতিও ঘটতে পারতো। তাই এর কেনা-বেচা ও ব্যবহার নিয়ন্ত্রন এবং নিষিদ্ধ করা দরকার।

কালিহাতী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোল্লা আজিজুর রহমান এ বিষয়ে বলেন, এ ধরণের কোনও অভিযোগ আমি পাইনি, খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, চেতনা নাশক দ্রব্যের বিষয়টি আইন শৃংখলা সভায় উত্থাপন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ বিভাগের আরো সংবাদ