আজ ২রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৬ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

মির্জাপুরে জিনের বাদশা চিকিৎসার নামে প্রতারণা,তিন ভাই গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ জিনের বাদশা সেজে টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মীর এনায়েত হোসেন মন্টুর স্ত্রীর কাছ থেকে ১৬ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে তিন সহোদরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার (৫ জুন) ভোলা জেলার বোরহান উদ্দিন উপজেলার দেওলি শিবপুর গ্রাম থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতাররা হলেন ভোলা জেলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার দেওলি শিবপুর গ্রামের আব্দুর রবের তিন ছেলে মিন্টু মিয়া (৩৫)আলম মিয়া (২৭) ও মিজানুর রহমান (২২)।

পুলিশ জানায়উপজেলা চেয়ারম্যানের স্ত্রী মনোয়ারা বেগম (৬০) দীর্ঘদিন ধরে পেটের ব্যথায় ভুগছেন। গত ১৫ মার্চ রাত আনুমানিক সোয়া ১১টার দিকে তিনি তার নিজ কক্ষে টিভি দেখছিলেন। এ সময় তিনি ডিস লাইনে ৪৩ ভিডিও চ্যানেল’ নামে স্থানীয় চ্যানেলে চিকিৎসার চটকদার বিজ্ঞাপন দেখেন। যোগাযোগের জন্য বিজ্ঞাপনের নিচে একাধিক মোবাইল নম্বর প্রদর্শন করা হয়। মনোয়ারা বেগম ওই নম্বরে যোগাযোগ করেন। তাদের সঙ্গে কথা বলে তার বিশ্বাস জন্মায়।

বিবাদীরা জিনের বাদশা পরিচয় দিয়ে চিকিৎসা করানোর কথা জানান। পরে প্রতারকরা কৌশলে মহিষনতুন কাপড় দেয়ার অজুহাতে গত তিন মাসে বিভিন্ন সময় বিকাশের মাধ্যমে ১৫ লাখ ৯৯ হাজার টাকা হাতিয়ে নেন।

বিষয়টি পারিবারিকভাবে জানাজানি হলে মনোয়ারা বেগমের ভাতিজি খালেদা আক্তার ২৩ মে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের নামে মির্জাপুর থানায় মামলা করেন। পরে পুলিশ তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে শুক্রবার রাতে তাদের গ্রেফতার করে পুলিশ।

মির্জাপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মীর এনায়েত হোসেন মন্টু বিষয়টি নিয়ে পরে কথা বলবেন বলে জানান।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) আলাউদ্দিন বলেনশনিবার দুপুরে ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে তাদের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. আরিফুল ইসলামের আদালতে নিয়ে গেলে বিচারক তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ বিভাগের আরো সংবাদ