আজ ৬ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

যৌতুকের দাবিতে কালিহাতীতে গৃহবধুকে হত্যাচেষ্টা

স্টাফ রিপোর্টারঃ যৌতুকের জন্য রাজিয়া সুলতানা নামে এক গৃহবধূকে পিটিয়ে মুখে হেক্সিসল ঢেলে হত্যাচেষ্টা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে নির্যাতিতা গৃহবধূ ও তার পরিবার। কালিহাতী উপজেলার হাওড়া পাড়ায় এ ঘটনা ঘটেছে।

রাফিজা ধনবাড়ী উপজেলার দড়িবিয়াড়া এলাকার আব্দুর রাজ্জাক সরকারের মেয়ে। পরে নির্যাতিতা গৃহবধূকে উন্নত চিকিৎসার জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল থেকে রেফার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

জানা যায়, ২০১৭ সালের ৫ মে পারিপারিকভাবে কালিহাতি উপজেলার হাওড়া পাড়ার মো. ইসমাইল হোসেনের ছেলে ফয়সাল ও রাফিজার বিয়ে হয়। বিয়ের সময় আব্দুর রাজ্জাক মেয়ের সুখের কথা ভেবে ১০ ভরি স্বর্ণালংকার ও একটি মোটরসাইকেল দেন। বিয়ের কিছুদিন যেতে না যেতেই ফয়সাল যৌতুকের জন্য রাফিজাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করতে শুরু করেন।

সোমবার (৭ সেপ্টেম্বর) এরই ধারাবাহিকতায় ফয়সাল রাজিয়াকে তার বাবার কাছ থেকে পাঁচ লাখ টাকা যৌতুক এনে দিতে বলেন। এতে রাজি না হওয়ায় ফয়সাল ও তার পরিবারের লোকজন রাফিজাকে পিটিয়ে তার মুখে হেক্সিসল ঢেলে হত্যাচেষ্টা করেন। তারাই রাফিজাকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগে রেখে পালিয়ে যান।

পরে অন্য রোগীর স্বজনদের মোবাইল দিয়ে রাফিজা তার বাবার বাড়িতে বিষয়টি জানান। পরিবারের লোকজন আসলে চিকিৎসক রাজিয়াকে ঢাকায় রেফার করেন। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানিয়েছেন রাফিজার বাবা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ বিভাগের আরো সংবাদ